post
অনুষ্ঠান

নরসিংদীতে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের স্থানান্তরিত ভবন উদ্বোধন

বাংলাদেশকে যারা তলাবিহীন ঝুড়ি হিসেবে পরিচিতি করতে চেয়েছিল, তাদের সেই ব্যাখ্যাকে ভূল প্রমাণিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো: খায়রুল আলম। নরসিংদীতে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের স্থানান্তরিত ভবনের উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন। ব্যাংকের ঢাকা উত্তর অঞ্চল প্রধান মো: মাহবুবুল হাসানের সভাপতিত্বে বিশেষে অতিথি ছিলেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ মজিবর রহমান, উপ মহাব্যবস্থাপক মফিজুল ইসলাম, নরসিংদী প্রেসক্লাব সভাপতি নুরুল ইসলাম, জনশক্তি ও কর্মসংস্থান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক এনামুল হক, নরসিংদী সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী নাবিলা নুঝাত, নরসিংদীর শাখা ব্যবস্থাপক ও সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার মোঃ কবিরুল হাসান।

post
অনুষ্ঠান

ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ইউকে’র অভিষেক ও বর্ষবরণ অনুষ্ঠিত

ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ইউকে’র অভিষেক ও বর্ষবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিলেতের বিভিন্ন শহর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা তাঁদের পরিবারের সদস্যদেরকে নিয়ে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানটিকে রূপ দেন নবীন প্রবীণের এক প্রাণবন্ত মিলনমেলায়। নর্থ লন্ডনের দর্জি প্যাভিলিয়নে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট ডক্টর রহমান জিলানী, প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এনামুল হক, জেনারেল সেক্রেটারি প্রফেসর ডক্টর সিরাজুল হক চৌধুরী, নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট কচি কবির, নব-নির্বাচিত জেনারেল সেক্রেটারি কাউন্সিলর খালেদ মিল্লাত, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ডক্টর মোসাদ্দেক হোসেন বিশ্বাস, ট্রেজারার আব্দুল হাকিম ভূঁইয়া ও নব-নির্বাচিত ট্রেজারার অজিত সাহা। পরে অভিষেক পর্বে নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট কচি কবির, জেনারেল সেক্রেটারি কাউন্সিলর খালেদ মিল্লাত ও ট্রেজারার অজিত সাহার নেতৃত্বে গঠিত ৪১ সদস্যের নতুন কার্যনির্বাহী পরিষদকে পরিচয় করে দেয়া হয়।

post
অনুষ্ঠান

প্রীতি ফুটবল ম্যাচ ও সমুদ্র সৈকত ভ্রমণের আয়োজন করলেন আল মাষ্টার গ্রুপ কাতার

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ ও সমুদ্র সৈকত ভ্রমণ করেন আল মাষ্টার গ্রুপ কাতার। দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় শহর আল-গোরিয়া সমুদ্র সৈকতে দিনব্যাপী বিভিন্ন রকম খেলাধুলা ও প্রীতি ফুটবল ম্যাচ পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। আল মাস্টার গ্রুপের কর্মীদের মধ্যে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। ম্যাচ শেষে বিজয়ী দল ও খেলায় অংশগ্রহণকারী সকলের হাতে পুরস্কার ট্রফি তুলে দেন আল মাস্টার গ্রুপের চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন আল মাস্টার গ্রুপের ম্যানেজার আজিজুল ও মিডিয়া উপদেষ্টা এম এ সালাম।

post
অনুষ্ঠান

মালদ্বীপে আহলে সুন্নাতের সভা

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত মালদ্বীপ শাখার উদ্যোগে শবে কদর উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীর মালের স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে এ আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন মোহাম্মদ জাকির হোসেন। ক্বারী মোঃ আব্দুল আজিজ এর সভাপতিত্বে শবে কদরের তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা করেন মাওলানা শফিকুল ইসলাম ও মাওলানা মোঃ আব্দুল হান্নান। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা মোঃ এরশাদ ও মোহাম্মদ ইয়াসিন।

post
অনুষ্ঠান

আবদুল্লাহপুর ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট ইউকের ইফতার

আবদুল্লাহপুর ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট ইউকের উদ্যোগে পূর্ব লন্ডনের স্থানীয় একটি হলে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ বদরুল হক ও পরিচালনা করেন ফরহাদ উদ্দিন। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন আব্দুর রহমান। রোজার তাৎপর্য নিয়ে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সেক্রেটারী শামিম আহমেদ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোহাম্মদ সেলিম, হারুন রশিদ, সালেহ আহমদ নাজু, এমদাদুর রহমান শুককুর, মহি উদ্দিন এবং ফয়েজ উদ্দিনসহ আরো অনেকে।

post
অনুষ্ঠান

৩ সেকেন্ড রিভিউয়ে সপ্তাহে ১৬০ কোটি আয়ের অভিনব পদ্ধতি!

মাত্র ৩ সেকেন্ডে বিভিন্ন পণ্যের রিভিউ শেয়ার করে এক সপ্তাহে ১৬০ কোটি টাকা আয় করেন চীনের ঝেং জিয়াং জিয়াং নামক একজন নারী। এই চীনা নারী সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রভাবশালী অনলাইন পণ্য প্রচার করে একরকম বিপ্লবই ঘটিয়ে ফেলেছেন।এনডিটিভি জানিয়েছে, বিভিন্ন সামাজিক প্লাটফর্মের এক একটিতে ঝেং জিয়াং জিয়াংয়ের ৫০ লাখেরও বেশি অনুসারী আছে। বেশিরভাগ সোশ্যাল মিডিয়ারই প্রভাবশালীরা সাধারণত বিশদভাবে বর্ণনা করে বিভিন্ন পণ্যের রিভিউ দিয়ে থাকলেও ঝেং তা না করে কেবলমাত্র তিন সেকেন্ডের জন্য একটি পণ্য দেখান।এমনকি লাইভে থেকেও মাত্র ৩ সেকেন্ডের মধ্যে পণ্যের রিভিউ দেন তিনি। লাইভ চলাকালীন ঝেংয়ের সহকারী একটি কমলা রঙের বাক্স থেকে বিভিন্ন আইটেম একের পর এক তার হাতে তুলে দেন। মিলি সেকেন্ডের মধ্যে তিনি প্রতিটি পণ্য নিয়ে সংক্ষিপ্তভাবে এটি ক্যামেরায় প্রদর্শন করেন, এর দাম উল্লেখ করেন এবং অবিলম্বে লাইভ বন্ধ করে দেন। তার অভিনব কৌশলটি অত্যন্ত কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে। কারণ তিনি যেসব পণ্য প্রচার করেন সেগুলোর বিক্রির হার হুড়হুড় করে বেড়ে যায়। এত অল্প সময়ে দর্শকদের মনোযোগ ধরে রাখার জন্য ঝেংয়ের এই অভিনব পদ্ধতি বেশ প্রশংসিত হচ্ছে।

post
অনুষ্ঠান

চ্যানেল আই সেরা কন্ঠ নর্থ আমেরিকার অডিশন রাউন্ডে ওয়াশিংটন ডি.সি ‘র ৫ জনের মিললো 'ইয়েস কার্ড'

এখানে গানের প্রতিযোগিতায় এসেছিলো শিশুরা। তারা গাইলো তাদের প্রিয় গানগুলো। বড়রাও এসেছিলেন কেউ কেউ। তারাও শিশুদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নেমে পড়লেন। তবে প্রতিযোগিতা ছাপিয়ে অনুষ্ঠানস্থল গানের হয়ে উঠলো। আর হয়ে উঠলো উপভোগ্য। তাতে ইয়েস কার্ড পেলো ৫ জন। তবে জয়ী হলো তারা সবাই। গত ৩০ ডিসেম্বর শুক্রবার, ভার্জিনিয়ার আলেক্সজেন্ড্রিয়ার “ডাটা গ্রুপ সেন্টার” মিলনায়তনে চ্যানেল আই সেরা কন্ঠ নর্থ আমেরিকা-ওয়াশিংটন ডিসি অডিশন অংশ নেন এমন ২০ জন প্রতিযোগী। তাদের মধ্যে ইয়েস কার্ড পেয়ে চ্যানেল আই সেরাকন্ঠ উত্তর আমেরিকায় ফাইনাল রাউন্ডে অংশ নেওয়ার সুযোগ মিললো ৫ জনের। বড়দের চেয়ে অপেক্ষাকৃত শিশুরাই ছিলো এগিয়ে। এবং তারাই বিজয়ী হয়ে পরের রাউন্ডে যাওয়ার গৌরব অর্জন করে নিয়েছে।এর হচ্ছে- মাহদীয়া ঈশাল, অপ্সরা বণিক, শ্রেয়সী বড়ুয়া, ঐশ্বর্য্য বণিক এবং এন্থনী রুদ্র।ওয়াশিংটন অডিশনের বিচারক ছিলেন প্রখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী কন্ঠযোদ্ধা রথীন্দ্রনাথ রায় ও নাসের চৌধুরী।বিচারকরা কাগজ কলম নিয়ে টেবিলে বসলে প্রথমেই গান গাইতে এলো শিশু শিল্পী ঐশ্বর্য্য বণিক। সে গাইলো সোলসের সেই বিখ্যাত গান- এ এমন পরিচয়, অনুমতি প্রার্থনা। দারুণ সুর ছড়িয়ে ঐশ্বর্য্য মঞ্চ ছাড়লে স্ট্যাফানি মন্ডল দিশা গেয়ে শোনালো যারে, যারে উড়ে যারে পাখি গানটি। শিশুকণ্ঠে লতা মুঙ্গেশকরের সেই গান উপভোগ করলো সকলে। সে সুরের রেশ কাটতে না কাটতেই চিরকূট ব্যান্ডের গান নিয়ে এলো তানজিমা মিষ্টি। সে গাইলো একটু তোমায় নিলাম আমি- গানটি। পরে শাহনাজ রহমতউল্লার দেশাত্ববোধক গান আমার দেশেরও মাটিরও গন্ধে ভরে আছে সারা মন গেয়ে সকলকে মুগ্ধ করলো শ্রেয়সী বড়ুয়া। আর সুবীর নন্দীর দিন যায় কথা থাকে গানটি গেয়ে শোনালেন আবদুল্লাহ আল মাসুদ। মান্না দের কফি হাউসের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই থেকে গাওয়ার চেষ্টা করলেন সুব্রত বাইন। খালিদ হাসান মিলুর যে প্রেম স্বর্গ হতে এসে জীবনে অমর হয়ে রয় এই গানটি গেয়ে বিচারকের মন পেতে চেষ্টা করলেন পরপর দুই জন নিহারজিৎ দত্ত ও তানভীর। তবে আবারও সুবের তালে দর্শকদের মাতিয়ে বিচারকদেরও মন কেড়ে নিলো শিশু শিল্প মাহদীয় ঈশাল। সে গেয়ে শোনালো রবীন্দ্র সঙ্গীত- তোমার খোলা হাওয়া, লাগিয়ে পালে। রবীন্দ্র সঙ্গীতের রেশ কাটতে না কাটতেই নজরুল গীতি নিয়ে এলো অপ্সরা বণিক। ফিরিয়া যদি সে আসে এই রাগপ্রধান গানটি গেয়ে সকলকে মুগ্ধ করলো সে। এরপর কিছুটা বক্তৃতার পালা হলেও সবশেষে ছোট্ট শিশু এন্থনি রুদ্র তার গানে দর্শককে মুগ্ধ করলো। গান শেষ হলে ফলের অপেক্ষা। অবশেষে জানানো হলো চ্যানেল আই সেরা কন্ঠ নর্থ আমেরিকার অডিশন রাউন্ডে ইয়েস কার্ড পেয়েছে ওয়াশিংটন ডি.সি ‘র মাহদীয়া ঈশাল, অপ্সরা বণিক, শ্রেয়সী বড়ুয়া, ঐশ্বর্য্য বণিক ও এন্থনী রুদ্র।আগামী ২রা জানুয়ারী নিউ ইয়র্কের গুলসান টেরেসে জাকজমকপূর্ণ ফাইনাল রাউন্ডে যোগ দেবার আমন্ত্রণ জানিয়ে ইয়েস কার্ড দেন চ্যানেল আই ইউএসএ’র চীফ অপারেটিং অফিসার রাশেদ আহমেদ।ডিসি অডিশন রাউন্ডে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রবীন সাংবাদিক সরকার কবির উদ্দিন, মাসুদা খাতুন, প্রযোজক ওয়ালি ফাহমি, ড. ফয়সল কাদের ও স্পন্সর‌ ডাটা গ্রুপ সিওই জাকির হোসেন। অনুষ্ঠানের সাবির্ক সহযোগিতায় ছিলেন শামীম চৌধুরী, রেদোওয়ান চৌধুরী, প্রানেশ হালদার, মাহসাদুল ইসলাম রূপম।ওয়াশিংটন ডিসির আগে কানাডার টরন্টো, ফিলাডেলফিয়া, নিউজার্সি, নিউইয়র্কসহ পৃথক পৃথক রাজ্যে জুমে আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ২রা জানুয়ারী উত্তর আমেরিকার সকল আঞ্চলিক বিজয়ীরা নিউইয়র্কে চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেবে। সেখানে বিজয়ী চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্স আপ বাংলাদেশে চ্যানেল আই সেরা কন্ঠ পর্বে অংশ নেবে। তবে নিউইয়র্কে সেরা পাচ নির্বাচিত করা হবে। কোন কারনে চ্যাম্পিয়ন কিংবা রানার্স আপের কেহ বাংলাদেশ পর্বে অংশ গ্রহনে অপরাগ হলে পর্যায়ক্রমে বাকী তিনজন থেকে অন্তর্ভূক্ত করা হবে।

post
অনুষ্ঠান

বিসিএ'র আনন্দঘন বড়দিন পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান

খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান বড়দিন উদযাপনে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন-মেরিল্যান্ড- ভার্জিনিয়া (ডিএমভি)'র বাংলাদেশি কমিউনিটিতে ছিলো নানা আনন্দময় আয়োজন ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানমালা।কীর্তন, গির্জায় খ্রীষ্টযাগ, বাড়িতে বাড়িতে আলোকসজ্জা, ক্ষমা অনুষ্ঠান ও নানা পদের বাংলা খাবার পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বড়দিনের ঐতিহ্যবাহী উদযাপন সম্পন্ন হলো এখানে। বাংলাদেশ খ্রিষ্টান অ্যাসোসিয়েশন, ইনক(বিসিএ) মেট্রো ওয়াশিংটন এলাকায় তিন দশক ধরে বাঙালি কায়দায় বড়দিন উৎসব উদযাপন করে আসছে। এ বছরও তার ব্যতিক্রম ছিলো না। দীর্ঘ এক মাস বাড়ি বাড়ি কীর্তন পরিবেশনা শেষে গত ২৬ ডিসেম্বর সিলভার স্প্রিং এলাকার রস্কো আর নিক্স এলিমেন্টারি স্কুল অডিটোরিয়ামে বড়দিন পূর্ণমিলনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। তিন শতাধিক প্রবাসী বাঙালির উপস্থিতিতে স্থানীয় শিল্পীদের নাচ, গান, যীশু খ্রীষ্টের জন্মের উপর নাটিকা, ব্যান্ড সঙ্গীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে উদাপিত হয় বড়দিন। এছাড়াও ছিলো লটারির র্যাফেল ড্র। সংগঠনের প্রেসিডেন্ট ডা. পেট্রিসিয়া শুক্লা গমেজ অনুষ্ঠানের শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। তিনি উপস্থিত দর্শকের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, বড়দিন আমাদের ধর্মীয় প্রাণের উৎসব। প্রবাসে নানা বাস্ততার মাঝেও আমরা সকলে আজ একত্রে মিলিত হতে পেরেছি। বাংলা সংস্কৃতি আপনারা ভালোবাসেন বলেই আজ আমাদের ডাকে আপনারা সাড়া দিয়েছেন। সংগঠনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক নিয়তি নির্মলা রোজারিও অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বের ঘোষণা করে অনুষ্ঠানের সঞ্চালক তিলোত্তমা ও বিস্ বিভাষ ফ্রান্সিস রোজারিওকে মঞ্চে আহ্বান করেন তাদের হাতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্ব তুলে দেন। এর আগে বর্তমান কার্যকরী পরিষদ সদস্যদের উপস্থিতিতে বড়দিনের কেটে কাটেন প্রেসিডেন্ট ডা. পেট্রিসিয়া শুক্লা গমেজ ও ভাইস প্রেসিডেন্ট শ্যামল ডি'কস্তা। এ সময় সংগঠনের উপদেষ্টা জুড ভি গোমেজ, খ্রিষ্টফার গোমেজ ও ড. পল ফেবিয়ান গোমেজ উপস্থিত ছিলেন। সাংস্কৃতিক পর্বে সংগঠনের নিয়মিত শিল্পীদের পরিবেশনায় বড়দিনের গান 'আজ এলো সেই বড়দিন' ও দেশের গান 'প্রতিদিন তোমায় দেখি সূর্যের আগে' পরিবেশন করা হয়। যার পরিচালনায় ছিলেন মুক্তা মেবেল রোজারিও ও সবিতা গোমেজ। একঝাঁক শিশু-কিশোরদের নিয়ে সুমা গোমেজের পরিচালনায় পরিবেশন করা হয় যীশুর জন্মভিক্তিক নাটিকা। শিশু-কিশোরদের গানে অংশ নেয় অনন্ত পিউরিফিকেশন, মেঘা পিউরিফিকেশন দ্রোহী পেরেরা। নাচে অংশ নেয় স্যান্ড্রা মারিয়া পেরেরা, মনীষা গোমেজ, পিটার পালমা, এলিজাবেথ পালমা ক্লাউডিয়া রিবেরু, তিলোত্তমা রোজারিও , পরমেশ্বপরী, মেঘা পিরিফিকেশন, এমিলিয়া গোমেজ ও ক্লেয়ার রোজারিও। নৃত্যে কোরিওগ্রাফি করেন মঞ্জুরি নৃত্যালয়ের শিল্পী গ্লোরিয়া রোজারিও ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন নৃত্যশিল্পী রোজ মেরি মিতু রিবেরু। বাংলা বাজারের সৌজন্যে উপস্থিত দর্শকদের অংশগ্রহণে ক্যুইজ পর্ব ও পুরস্কার বিতরণ পরিচালনা করেন বিপুল এলিট গনসালভেস ও খ্রীষ্টফার রোজারিও। আহার পর্ব চলাকালে প্রজেক্ট এক্স ব্যান্ড দল সংগীতের মাধ্যমে বড়দিনের আনন্দকে আরো একধাপ উত্তাপ ছড়িয়ে দেয়। হৃদয় পেরেরা, অদিতি পিউরিফিকেশন ও সক্রেটিস পিউরিফিকেশন এক এক করে জনপ্রিয় ব্যান্ড সঙ্গীত পরিবেশন করে উপস্থিত দর্শকদের মাতিয়ে তোলেন। আহার পর্বের শেষে লটারি ড্র এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট শ্যামল ডি'কস্তার ধন্যবাদ বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে শেষ হয় বড়দিন পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠান গ্রান্ড স্পন্সর ছিলেন লোন অফিসার শরীফ আহমেদ, লোন অফিসার মতিন, রিয়েলেটর আলবার্ট গোমেজ, রিয়েলেটর টমাস ডেনিম রোজারিও, ডায়না ফেশন ও মৌরিয়া কাবাব রেষ্টুরেন্ট (শীতল ডমিনিক গমেজ)।

post
অনুষ্ঠান

বাই'র নতুন পরিচালনা পর্ষদের শপথ ও বিজয় দিবস উদযাপন

শপথ নিলেন বাংলাদেশ আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ইনকর্পোরেশন-বাই'র নতুন পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা। তারা সংগঠনের সংবিধান মেনে তাদের দায়িত্ব পালনের অঙ্গীকার করলেন।যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশিদের প্রাচীনতম সংগঠন এই বাই। সম্প্রতি এর ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন হয়ে গেলো। নতুন বছরে এসে বাই যাতে তাদের গৌরবময় পথচলা আরও প্রসারিত করতে পারে সে লক্ষ্যে গঠিত হয়েছে নতুন কমিটি। গত ১৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডের বেথেসডায় এই শপথ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। আয়োজনে একই সঙ্গে ছিলো বাই-এর সাধারণ সভা। আর মহান বিজয় দিবস উদযাপন। নাচ-গান-কবিতায় উদযাপিত হয় মহান মুক্তিযুদ্ধে বাঙালির বিজয়। সুদুর আমেরিকায় বসে বাংলাদেশের জাতীয় দিনগুলো যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করাই বাই-এর অন্যতম প্রধান একটি কাজ। সে কথাই বলছিলেন বাইয়ের সাধারণ সম্পাদক দিলশাদ চৌধুরী ছুটি। সাধারণ সভায় বার্ষিক প্রতিবেদন তুলে ধরছিলেন তিনি। সাধারণ সভায় বাইয়ের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট সালেহ আহমেদ বক্তব্য রাখেন। বক্তব্য রাখেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট শফিকুল ইসলাম। তুলে ধরা হয় বার্ষিক অর্থ প্রতিবেদন। সংগঠনের ভবিষ্যত কর্মপন্থা ও পথচলা সুগম করতে করণীয় দিকগুলো নিয়ে সদস্যরা আলোচনা করেন। বিভিন্ন প্রশ্নও উত্থাপন করেন তারা যার উত্তর দেন বিদায়ী ও নতুন কমিটির প্রধানরা। এতে ডিসি, ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ডের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের অন্য রাজ্যগুলো থেকেও যাতে সদস্য নেওয়া হয় সে বিষয়ে প্রস্তাব ওঠে। কমিউনিটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের কথা উঠে আসে আলোচনায় যাদের পৃষ্ঠপোষকতায় বাই এগিয়ে চলেছে। এতে বারবারই উঠে আসে ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির চ্যান্সেলর আবুবকর হানিপের নাম। পরে ২০২৩-২৪ মেয়াদের জন্য নির্বাচিত পরিচালনা বোর্ডের সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধান নির্বাচন কমিশনার জিয়াউদ্দিন চৌধুরী। নির্বাচন কমিশনার বশির আহমেদ ও শফি দেলোয়ার কাজল এসময় উপস্থিত ছিলেন। নতুন পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা হচ্ছেন সভাপতি শফিকুল ইসলাম (মেরিল্যান্ড), সহসভাপতি দিলশাদ চৌধুরী ছুটি (মেরিল্যান্ড), সাধারণ সম্পাদক তাহমিদ শাহরিয়াদ (ভার্জিনিয়া), যুগ্ম সম্পাদক আনিসুজ্জামান খান (ভার্জিনিয়া), কোষাধ্যক্ষ আফরিন বেগম ফেন্সী (মেরিল্যান্ড), পরিচালক মেরিনা রহমান (মেরিল্যান্ড), ফয়সাল করিম (ভার্জিনিয়া), আরিফ আহমেদ (মেরিল্যান্ড), রেহানা কুদ্দুস (ভার্জিনিয়া), ফ্রেন্সিস গোমেজ (মেরিল্যান্ড), তারিক হাবীব (ভার্জিনিয়া), ডোরা গোমেজ (মেরিল্যান্ড), সামিউল ইসলাম (ভার্জিনিয়া), আবুল এহসান ভুঁইয়া (মেরিল্যান্ড)বাইয়ের সাবেক নেতৃত্বদের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান নতুন প্রেসিডেন্ট শফিকুল ইসলাম। এরপর শুরু হয় বিজয় উদযাপন। মহান মুক্তিযুদ্ধের সেই বিজয়ের দিনটিকে স্মরণ করে ডোনা গোমেজ গাইলেন জন্ম আমার ধন্য হলো মাগো। পরে ফ্রান্সিস গোমেজের কণ্ঠে সকলে শুনলো যে মাটির বুকে ঘুমিয়ে আছে লক্ষ মুক্তি সেনা। ভয়েস অব আমেরিকার সাংবাদিক আনিস আহমেদ পড়ে শোনালেন স্বরচিত কবিতা ২৫ থেকে ২৬। পরপর দুটি দিনের দুটি উল্টো চিত্র বাংলাদেশের জন্য কতটা কষ্টের ও আবেগ-আনন্দের তা ফুটে উঠেছে এই কবিতায়। এরপর নাচ। নতুন প্রজন্মে এই দেশে বেড়ে ওঠা ছেলে-মেয়েরা নাচলো ধনধান্য পুষ্পে ভরা আমাদের এই বসুন্ধরা... মুক্তিরও মন্দিরও সোপানও তলে কত প্রাণ হলো বলিদান.... তীর হারা এই ঢেউয়ের সাগর পাড়ি দেবো রে... আর পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে রক্তলাল রক্তলাল রক্তলাল এমন সব মুক্তির প্রাণ জাগানিয়া গানে। সবশেষে ছিলো নৃত্যনাট্য। বাংলাদেশের কিংবদন্তী শিল্পী লায়লা হাসানের নির্দেশনা ও পরিচালনায় দর্শক দেখলো সব কটা জানালা খুলে দাওনা ওরা আসবে চুপি চুপি যারা এই দেশটাকে ভালোবেসে দিয়ে গেছে প্রাণ এর উপর একটি অনন্য উপস্থাপনা। এসব উপস্থাপনায় শিল্পীরা ছিলেন মকবুল আহসান টিটো, প্রণব বড়ুয়া, ফারিয়া ইসলাম মাহিন, মারিয়া ইসলাম জাহিন, হারুনুর রশিদ, তিলক কর, সামারা এলাহী, সানিকা এলাহী, রাকিন এলাহী, আহসান সাদাফ, লাবিবা ইসরাত রহমান। মুক্তিসেনাদের সেই স্মৃতিজাগানিয়া গানের রেশ কানে রেখে দর্শকরা বিদায় নিলো দেশাত্ববোধের নতুন চেতনা নিয়ে। 

post
অনুষ্ঠান

’বাইটপো’র উদ্যোগে “বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের ভূমিকা” শীর্ষক সেমিনার ২৩ অক্টোবর

‘বাংলাদেশি আমেরিকান আইটি পিপলস অর্গানাইজেশন’(বাইটপো)’র উদ্যোগে ২৩ অক্টোবর “বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের ভূমিকা” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে ওয়াশিংটন ইউনভিার্সিটি অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি(ওয়াস্ট)’র অডিটরিয়ামে।এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আমীর মোহাম্মদ নসরুল্লাহ বাহাদুর।বিশেষ অতিথি থাকবেন ‘আমেরিকান ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ স্টাডিজ’ এর সাবেক প্রেসিডেন্ট ও নিউজার্সির মনমাউথ ইউনিভার্সিটির স্কুল অব সোস্যাল ওয়ার্কের এমিরিটাস প্রফেসর ড. গোলাম এম মাতবর, দি ইনস্টিটিউট অব ইলেকট্রিকেল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ার (আইইই)’র নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ও ভার্জিনিয়া টেক ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিকেল এন্ড কম্প্যুটার ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রফেসর ডঃ সাইফুর রহমান, বিশ্বব্যাংকের কনসালটেন্ট ড. আনোয়ার করিম, ম্যারিল্যান্ডের কপিন স্টেট ইউনিভার্সিটির ন্যানোটেকনলজির ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ড. জামাল উদ্দিন, বিশিষ্ট শিল্প উদ্যোক্তা ড. ফয়সাল কাদের। এ ছাড়াও সম্মানিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে আলোচনায় অংশ নেবেন ওয়াস্ট’র চ্যান্সেলর ইঞ্জিনিয়ার আবুবকর হানিপ, ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের সাবেক প্রধান রোকেয়া হায়দার, সরকার কবীরুদ্দীন, প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম, প্রফেসর ড. আমিনুর রহমান, ড. মিজানুর রহমান, ড. শোয়েব চৌধুরী প্রমুখ।সেমিনারের সার্বিক দায়িত্ব ও পরিচালনা করবেন বাইটপোর ভাইস প্রেসিডেন্ট সাইফুল্লাহ খালেদ, সেক্রেটারি হাবিবুল্লাহ কচি ও এন্থনী পি গোমেজ। সভাপতিত্ব করবেন বিশিষ্ট লেখক, আইটি বিশেষজ্ঞ ও বাইটপোর সভাপতি সামছুদ্দীন মাহমুদ।

About Us

NRBC is an open news and tele video entertainment platform for non-residential Bengali network across the globe with no-business vision just to deliver news to the Bengali community.