post
এনআরবি বিশ্ব

যুক্তরাজ্যে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত

যুক্তরাজ্যে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।যুক্তরাজ্য যুবলীগ গ্রেটার ম্যানচেস্টার শাখার উদ্যোগে স্থানীয় জিএমবিএ এর কনফারেন্স হলে এ আয়োজন করা হয়। সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মিজানুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে পরিচালনা করেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গ্রেটার ম্যানচেস্টার আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরাবুর রহমান। অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধা ড: নজরুল ইসলাম, সৈয়দ মাহমুদুর রহমান,মীর গোলাম মোস্তফা,রহুল আমিন রুহেল, ওয়েস কামালী ও শেখ জাফর আহমদ।

post
এনআরবি বিশ্ব

ইলফোর্ডে নববর্ষ উপলক্ষ্যে এক বর্ণাঢ্য বর্ষবরণ উৎসব অনুষ্ঠিত

পূর্ব লন্ডনের ইলফোর্ডে নববর্ষ উপলক্ষ্যে এক বর্ণাঢ্য বর্ষবরণ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।অনুষ্ঠানে সঙ্গীত, নৃত্য, কবিতা আবৃত্তি ইত্যাদিতে অংশগ্রহণ করেন উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, উদীচী স্কুল অফ পারফর্মিং আর্টস এর ছাত্রছাত্রীরা। সঙ্গীত পরিচালনায় ছিলেন হিরা কাঞ্চন হিরক, নৃত্য পরিচালনায় ছিলেন শ্রীপর্ণা দেব সরকার। তত্বাবধানে ছিলেন তৌফিকুর রহমান, মাধবী,  ঝুমনী, আতিয়া,  শিখা এবং নীরা। অনুষ্ঠানে সংগঠনের সহ সভাপতি কবি গোলাম কবির শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। সংগঠনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ দেন।

post
এনআরবি বিশ্ব

বাংলাদেশ এসোসিয়েশন কাতালোনিয়ার আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

স্পেনের বার্সেলোনায় 'বাংলাদেশ এসোসিয়েশন কাতালোনিয়ার আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।স্থানীয় একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত এ আলোচনা সভায় সংগঠনের নতুন কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ৯ সদস্যবিশিষ্ট একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়। সভার শুরুতে সভাপতি সুরুজ্জামান জামান উপস্থিত সকল প্রবাসীদের ধন্যবাদ এবং শুভেচ্ছা জানিয়ে তার স্বাগত বক্তব্য দেন। আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন প্রবীণ কমিউনিটি নেতা আব্দুল বাসিত কয়ছর, আব্দুল হাকিম, আবু ইউসুফ, জসিম উদ্দিন, শিপলু আহমেদ নিয়াজি, জসিম উদ্দিন, করিম উদ্দিন, এলাইস মিয়া, শহীদ উদ্দিন, সেলিম আহমদ লালন, নুরুজ্জামান আলী ও ইকবাল বকসিসহ অনেকে।

post
এনআরবি বিশ্ব

মক্কা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

মক্কা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ সাঈদ খোকনের সভাপতিত্বে এ আয়োজন করা হয়। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ আকবরের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জিসান মাহমুদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, এ কে এম আজগর আলী, আসলাম সেলিম, কাসেম আলী, জয়নাল আবেদীন, হোসেন খান এনায়েত, সাদ্দাম হোসেন ও জুনায়েদ আহমেদ।

post
এনআরবি বিশ্ব

কুয়েতে নিজস্ব জমিতে হবে বাংলাদেশ দূতাবাস

তিন দিক ঘিরে রয়েছে চীন, ফিলিস্তিন ও জাপানের দূতাবাস এবং একদম পাশ ঘেঁষেই রয়েছে জাতিসংঘের একটি ভবন। এরই মাঝামাঝি স্থানে নিজস্ব জমিতে হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দূতাবাসের চ্যান্সরী ভবন।দেশটির মুশরেফ এলাকার ডিপ্লোমেটিক জোনে কুয়েতের বরাদ্দকৃত ২টি জমি রাষ্ট্রদূতকে বুঝিয়ে দিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা স্বশরীরে উপস্থিত হন সেখানে। এসময় রাষ্ট্রদূত জানান, প্রয়োজনীয় সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন শেষে দ্রুত কুয়েতে নিজস্ব চ্যান্সরী ভবন এবং বাংলাদেশ হাউজ নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে। চ্যান্সরী ভবন এবং বাংলাদেশ হাউজ এর জন্য বরাদ্দকৃত জমি পরিদর্শন করেন, প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ হাসান উজ-জামান, কাউন্সিলর ও দূতালয় প্রধান মুহাম্মদ মনিরুজ্জামান সহ দূতাবাসের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা।

post
এনআরবি বিশ্ব

বৈধপথে রেমিটেন্স পাঠানোর আহবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদের

গ্রিসে অবস্থানরত প্রবাসীদের বৈধপথে রেমিটেন্স পাঠাতে আহবান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ। দেশটির রাজধানী এথেন্সে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ‘বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রিস’ আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আহবান জানান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন,বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের যে ভাষণ মুক্তিযুদ্ধের অবিচ্ছেদ্য অংশ। সেই ৭ মার্চও বিএনপি পালন করে না। এ থেকেই স্বাধীনতা-মুক্তিযুদ্ধে বিএনপি কতটুকু বিশ্বাস করে তা প্রমাণ হয় বলে অভিযোগ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে দূতাবাসের চার্জ দা এফেয়ার্স মোহাম্মদ খালিদ, কাউন্সিলর বিশ্বজিত কুমার পল ,দ্বিতীয় সচিব রাবেয়া বেগমসহ উপস্থিত ছিলেন গ্রীস আওয়ামী লীগের সভাপতি মান্নান মাতব্বর ,সাধারণ সম্পাদক বাবুল হাওলাদার ,সিনিয়র সহ -সভাপতি শেখ আলামিন সিআইপি, গ্রীস যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ।

post
এনআরবি বিশ্ব

আমিরাতে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশী ব্যবসায়ীর সংখ্যা বাড়ছে

সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশী ব্যবসায়ীর সংখ্যা বেশ বড়। এদের মধ্যে কিছু ব্যবসায়ী দীর্ঘ দিন ধরে সুনামের সাথে ব্যবসা করে আসছেন। তাদের মধ্যে আবার কেউ কেউ আমিরাতের গন্ডি পেরিয়ে ব্যবসার ক্ষেত্র প্রসারিত করছেন বহিঃবিশ্বে। তাদেরই একজন সিলেটের মুরাদুল ইসলাম। বিগত ত্রিশ বছর ধরে মরুর দেশটিতে এই প্রবাসী করছেন সুগন্ধি ব্যবসা।সিলেটের ওসমানী নগর বালাগঞ্জ থানার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মুরাদুল ইসলাম। প্রায় চার দশক আগে পাড়ি জমান সংযুক্ত আরব আমিরাতে। চার বছর চাকরির পর ১৯৯১ সালে স্বল্প পরিসরে শুরু করেন, সুগন্ধি তৈরীর প্রধান কাঁচামাল আগার উদের ব্যবসা। বিভিন্ন চড়াই উৎরাই পেরিয়ে ১৯৯৬ সালে আবুধাবিতে শুরু করেন নিজস্ব প্রতিষ্ঠান "রিহ্ আল মাদিনা উদ এন্ড পারফিউমস কোম্পানি এলএলসি"। পরে দুবাইতে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয়, বেশ কয়েকটি আউটলেট এবং আজমানে তৈরি করেন কারখানা।ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া এবং সিঙ্গাপুর থেকে কাঁচামাল হিসেবে আগার উদ আমদানি করে প্রসেসিং-এর পর তা সরবরাহ করা হয়। আমিরাতের বিভিন্ন রাজ পরিবার ও সরকারী দপ্তরের পাশাপাশি সৌদি আরব ও কাতারসহ মধ্যপ্রাচ্যের প্রায় প্রতিটি দেশে সুগন্ধি সরবরাহ করছে মুরাদুল ইসলাম।বর্তমানে ইউরোপ, আমেরিকা ও কানাডায় সুগন্ধি রপ্তানির মাধ্যমে সেখানেও বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যে যার কার্যক্রম শুরু হয়েছে যুক্তরাজ্যে সুগন্ধি সরবরাহের মাধ্যমে।সিলেট ইবনে সিনা হাসপাতালের অংশীদার মুরাদুল ইসলাম বাংলাদেশেও বেশ কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন। দেশের মানুষের জন্যেও কিছু করতে চান সফল এই রেমিটেন্স যোদ্ধা।

post
এনআরবি বিশ্ব

বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় উজবেকিস্তানে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উদযাপন

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও আনন্দময় পরিবেশে উজবেকিস্তানের রাজধানী তাসখন্দে বাংলাদেশ দূতাবাস উদযাপিত হয়ে গেলো বাংলা নববর্ষ ১৪৩১। ১৬ এপ্রিল মঙ্গলবার দূতাবাস প্রাঙ্গনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন করা হয়। উজবেকিস্তানে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিকসহ উজবেকিস্তানের রাজনৈতিক, একাডেমিক, ব্যবসায়িক, সাংস্কৃতিক, পর্যটন ও মিডিয়া অঙ্গনের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ব্যক্তিবর্গ ও প্রবাসী বাংলাদেশীবৃন্দ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। উপস্থিত অতিথিবৃন্দের অংশগ্রহণে মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের কর্মসূচি শুরু হয়। রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম তাঁর স্বাগত বক্তব্যে পহেলা বৈশাখকে বাঙালি সংস্কৃতির এক অবিচ্ছেদ্য অংশ বর্ণনা করে এর তাৎপর্য তুলে ধরেন। ‘মঙ্গল শোভাযাত্রাকে’ ইউনেস্কো কর্তৃক বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসাবে স্বীকৃতি ঘোষণা পহেলা বৈশাখের অর্থ ও তাৎপর্যকে বিশ্বজনীন করেছে বলে রাষ্ট্রদূত যোগ করেন। যুদ্ধ-বিগ্রহ,অত্যাচার, নিপীড়নসহ বিশ্ব এখন নানামুখী চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন, এ সময় পহেলা বৈশাখের চেতনা ও অন্তর্নিহিত অর্থ যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি প্রাসঙ্গিক ও গুরুত্বপূর্ণ বলে রাষ্ট্রদূত উল্লেখ করেন। পহেলা বৈশাখের চেতনাকে ধারণ ও লালন করে একটি শান্তিপূর্ণ, স্থিতিশীল ও সমৃদ্ধশালী পৃথিবী গঠনে অবদান রাখতে সকলকে রাষ্ট্রদূত আহবান করেন। তিনি আশা করেন আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশ-উজবেকিস্তান সম্পর্ক আরো গভীর ও ফলপ্রসূ হবে।আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির চেয়ারম্যান ও চ্যান্সেলর ইঞ্জিনিয়ার আবুবকর হানিপ। আয়োজনে উপস্থিত হবার জন্য ডব্লিউইউএসটির চ্যান্সেলরকে ধন্যবাদ জানান রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম। আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ নিজেদের মধ্যে আনন্দ ও অনুভূতি ভাগাভাগি করেন এবং অনুষ্ঠান আয়োজনে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন যে, এর মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশ ও উজবেকিস্তানের জনগণের মধ্যকার বন্ধুত্ব, সম্প্রীতি ও বোঝাপোড়া আরো সুসংহত ও শক্তিশালী হবে। অতিথিগণ বাংলাদেশের সমৃদ্ধ ইতিহাস ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে দেশ-বিদেশে তুলে ধরতে কাজ করে যাওয়ার জন্য একে অপরের প্রতি আহ্বান জানান।  উৎসব উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণ বিভিন্ন ধরনের রঙিন আলপনা, ব্যানার, ফুল, বেলুন প্রভৃতি দিয়ে সাজানো হয়। পরে দূতাবাস প্রাঙ্গনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যেখানে বাংলাদেশ ও উজবেকিস্তানের শিল্পীরা বাংলাদেশের দেশত্ববোধক, লোকজ ও জনপ্রিয় সংগীত ও নৃত্য পরিবেশনা দর্শকদের মুগ্ধ করে। বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাবার দ্বারা অতিথিদের কে আপ্যায়ন করা হয়, যা অনুষ্ঠানের আনন্দে এক নতুন মাত্রা যোগ করে।

post
এনআরবি বিশ্ব

বেলজিয়ামে বর্ণিল উৎসব ও আনন্দমুখর পরিবেশে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ বরণ

বেলজিয়ামে বর্ণিল উৎসব ও আনন্দমুখর পরিবেশে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ বরণ ও ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ আয়োজন করেছে প্রবাসী বাংলাদেশীদের নিয়ে গঠিত সংগঠন বন্ধুসভা। এতে কমিউনিটির ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিকসহ বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশিরা অংশগ্রহণ করেন। বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে বন্ধুসভার উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ বরন ও ঈদ পুনর্মিলনীর আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ছিল, বিভিন্ন স্টলে বাংলাদেশী ফুড ফেস্টিভ্যাল। এছাড়া শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, যেমন খুশি তেমন সাজো ও বড়দের জন্য ছিল বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় আয়োজন। প্রবাসীরা বলেন, বাংলা বর্ষবরণ বাঙালির সার্বজনীন উৎসব। বিভিন্ন ধর্মে-বর্ণে বিভক্ত হলেও ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির জায়গায় সব বাঙালি এক এবং অভিন্ন। বাংলা বর্ষবরণের উৎসব হয়ে ওঠে ইউরোপের বুকে যেন এক অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি।

post
এনআরবি বিশ্ব

নিউইয়র্কের টাইমস স্কয়ারে প্রবাসীদের বাংলা বর্ষবরণ

নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কয়ারে বাংলা বর্ষবরণ উদযাপন করেছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। শনিবার দুপুরে মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানে সহস্র কণ্ঠে দেশের গান পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীরা। তবে বাংলার ঐতিহ্যবাহী লোকগানে হাজার হাজার দর্শক-শ্রোতাদের মাতিয়ে তোলেন প্রখ্যাত কণ্ঠ শিল্পী মমতাজ। বর্ষবরণ অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন নিউ ইয়র্কের কনসাল জেনারেল মো. নাজমুল হুদা। নিউইয়র্ক সিটি মেয়র এরিক অ্যাডামসের এ অনুষ্ঠান উদ্বোধনের কথা থাকলেও অজ্ঞাত কারণে তিনি অনুষ্ঠানে আসেননি।অনুষ্ঠানে প্রবাসী বাংলাদেশি শিল্পীরা ছাড়াও বিভিন্ন দেশীয় নৃত্য শিল্পীরা তাদের দেশীয় ঐতিহ্যবাহী নৃত্য পরিবেশন করেন। বিকেল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলে দেশাত্মবোধক ও লোকগান। টাইমস স্কয়ারে বাংলা বর্ষবরণের আয়োজন করেন এনআরবি ওয়ার্ল্ড ওয়াইড নামের একটি সংগঠন। অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হাসান ইমাম, নৃত্যশিল্পী লায়লা হাসান, প্রধান পৃষ্ঠপোষক আইএফআইসি ব্যাংক-এ সিইও শাহ আলমসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 

About Us

NRBC is an open news and tele video entertainment platform for non-residential Bengali network across the globe with no-business vision just to deliver news to the Bengali community.