post
টেক মেন্টর

সমস্যায় ফেসবুক, প্রোফাইলে ত্রুটি

সমস্যায় ভুগছে মেটার মালিকাধীন ফেসবুক। নিজের ফেসবুকে বা বন্ধুর প্রোফাইলে দৃশ্যমান হচ্ছে ‘নো পোস্ট অ্যাভেইলেবল’। মঙ্গলবার সকাল থেকে ফেসবুকে এমন সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন কেউ কেউ। মুশাহিদ হোসেন নামের এক ব্যবহারকারী এক্সে লিখেছেন, ফেসবুকে ঝামেলা? নিজের ও অনেকের পোস্ট দেখতে পাচ্ছি না।তবে ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটার নিউজরুমে ত্রুটি সম্পর্কে কিছুই জানানো হয়নি। এক্সে সালমান সাঁকো নামের আরেক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘আমার সব পোস্ট কোথায়, ফেসবুক?’। ওয়েবসাইট ও পরিষেবার অবস্থা সম্পর্কে তথ্য প্রদানকারী অনলাইন মাধ্যম ডাউন ডিটেক্টরে এমন সমস্যা নিয়ে মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৫শ ব্যবহারকারী রিপোর্ট করেছেন। ডাউন ডিটেক্টরে এ বিষয়ে তারা বলেছেন, ‘সকাল থেকে ফেসবুক প্রোফাইলে কোন পোস্ট দেখা যাচ্ছে না। আমার সব পোস্ট কি ফেসবুক মুছে ফেলেছে?’ এদিকে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ফেসবুক আবারও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে বলে জানা গেছে। মাঝেমধ্যেই ফেসবুকে কারিগরি ত্রুটি দৃশ্যমান হচ্ছে। ঘণ্টার ব্যবধানে আবার তা স্বাভাবিকও হয়ে যায়। খবরে প্রকাশ, চলতি বছর ইনস্টাগ্রাম ও ফেসবুক মাধ্যমে কয়েক দফায় ব্যবহারকারীরা কারিগরি ত্রুটিতে ভুগেছেন।

post
টেক মেন্টর

শাওমির প্রথম গাড়ি উন্মোচন : ২৭ মিনিটে ৫০ হাজারের অর্ডার

নিজেদের প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ি (ইভি) বাজারে এনেছে চীনের বিশ্বখ্যাত স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান শাওমি। বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) সন্ধ্যায় এই গাড়ি উন্মোচন করা হয়। আশ্চর্যের বিষয় হলো, উন্মোচনের মাত্র আধা ঘণ্টার মধ্যেই ৫০ হাজারেরও বেশি গাড়ির অর্ডার পায় কোম্পানিটি।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শাওমির প্রধান নির্বাহী লেই জুন বলেন, গাড়িটির স্ট্যান্ডার্ড স্পিড আল্ট্রা সেভেন বা এসইউ৭ মডেলের দাম ২ লাখ ১৫ হাজার ৯০০ ইউয়ান বা ২৯ হাজার ৮৭২ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩২ লাখ ৫১ হাজার ৪৫২ টাকা)। আর ম্যাক্স সংস্করণের দাম ঠিক করা হয়েছে ২ লাখ ৯৯ হাজার ৯৯০ ইউয়ান (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪৫ লাখ ৫৮ হাজার ১৬৪ টাকা)। তিনি আরও জানান, উন্মোচনের মাত্র ২৭ মিনিটের মধ্যে আমরা ৫০ হাজারেরও বেশি গাড়ির অর্ডার পেয়েছি। গত ডিসেম্বরে এসইউ৭ মডেলের গাড়ি নির্মাণের ঘোষণা দেওয়ার সময় লেই জুন বলেছিলেন, শাওমি বিশ্বের শীর্ষ পাঁচটি গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের একটি হওয়ার পরিকল্পনা করছে। শাওমি কর্তৃপক্ষের দাবি, নতুন গাড়িতে সুপার ইলেকট্রিক মোটর প্রযুক্তি রয়েছে, যেটি টেসলা ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বৈদ্যুতিক গাড়ির চেয়ে বেশি গতি দিতে পারবে। এছাড়া শাওমির মোবাইল ব্যবহারকারীরাও এই গাড়িতে বিশেষ সুবিধা পাবেন। আরও এমন কিছু প্রযুক্তি এই গাড়িতে থাকবে, যা এর আগে চীনেও দেখা যায়নি। লেই জুন জানান, কোম্পানি পোরর্শের দুই স্পোর্টস-কার মডেল টায়ক্যান এবং প্যানামেরার আদলে তৈরি করা হয়েছে এসইউ ৭ এবং এসইউ ৭ ম্যাক্স। দু’টি গাড়িরই ন্যূনতম রেঞ্জ ৭০০ কিলোমিটার, যেখানে টিসলার মডেল ৩ জেনারেশনের গাড়িগুলোর ন্যূনতম রেঞ্জ ৫৬৭ কিলোমিটার। নিয়মিত ম্যানুয়ালের পাশাপাশি স্মার্টফোন, ল্যাপটপ ও অন্যান্য ইলেকট্রিক ডিভাইস দিয়েও পরিচালনা করা যাবে এইইউ ৭ এবং এসইউ ৭ ম্যাক্স। প্রসঙ্গত, শাওমি বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম স্মার্টফোন বিক্রেতা কোম্পানি। প্রতি বছর বাজারে যত স্মার্টফোন কেনাবেচা হয়, শতকরা হিসেবে সেসবের ১২ শতাংশের যোগান আসে শাওমি থেকে। ২০২২ সালে প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাণের ঘোষণা দেয় শাওমি। বিবিসিকে লেই জুন জানান, শিগগিরই চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বিএআইসি’র সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছে তাদের কোম্পানি। চুক্তিটি স্বাক্ষর হলে বিএআইসি’র বেইজিং প্ল্যান্টের দায়িত্ব পাবে শাওমি। এই প্ল্যান্টটিতে প্রতি বছর গড়ে ২ লাখ গাড়ি প্রস্তুত করা হয়। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, এর মধ্য দিয়ে ইলন মাস্কের গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নামলো শাওমি। যদিও চীনের অভ্যন্তরীণ বাজারে টেসলার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। টেসলার মডেল ৩ জেনারেশনের যেসব গাড়ি চীনের বাজারে সহজলভ্য, সেসবের মধ্যে সবচেয়ে সস্তাটির দাম ২ লাখ ৪৫ হাজার ৯০০ ইউয়ান (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩৭ লাখ ৩৭ হাজার ৪২১ টাকা)। টেসলার পাশাপাশি শাওমির অন্যতম প্রতিযোগী হলো আরেক চীনা প্রতিষ্ঠান বিওয়াইডি। ২০২৩ সালের শেষের দিকে টেসলাকে হটিয়ে বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রিতে শীর্ষে উঠে এসেছে বিওয়াইডি। শেষ তিন মাসে রেকর্ড ৫ লাখ ২৫ হাজার ৪০৯টি বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রি করেছে কোম্পানিটি। একই সময়ে টেসলা বিক্রি করেছে ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৫০৭টি গাড়ি। 

post
টেক মেন্টর

২৬ শে মার্চ উপলক্ষে পিপলএনটেকে আকর্ষণীয় অফার

একবিংশ শতাব্দীর শুরু থেকেই বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হলো তথ্যপ্রযুক্তি। নব্বইয়ের দশক থেকেই বিভিন্ন দেশে ইন্টারনেটের ব্যবহার শুরু হয়, বাংলাদেশও তার ব্যতিক্রম নয়। বিগত একযুগে উন্নত দেশগুলোর সাথে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশও প্রযুক্তি খাতে বিস্তর সাফল্য অর্জন করেছে। তথ্যপ্রযুক্তিতে ব্যাপক উন্নয়নের বদৌলতে বাংলাদেশের মানুষের জীবন যেমন সহজ হয়েছে, তেমনি অর্থনৈতিকভাবে আমরা উন্নয়নশীল দেশ থেকে উঠে এসেছি মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে।তথ্য প্রযুক্তিখাতে আপনার কাজের দক্ষতাকে আরো বৃদ্ধি করতে আকর্ষনীয় অফার ঘোষণা করেছে বাংলাদেশের স্বনামধন্য আইটি প্রতিষ্ঠান পিপলএনটেক ইন্সটিটিউট অফ আইটি।  স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে, ২৬শে মার্চে পিপলএনটেক এর অফিস ভিজিট করলেই পাচ্ছেন তিনটি আকর্ষণীয় অফার। ১, ফ্যাকাল্টির সাথে দেখা করার সুযোগ, ২, কোর্সে উপর ফ্ল্যাট ৫০% ডিসকাউন্ট ও ৩, আকর্ষনীয় গিফট এবং ইফতার বক্স।আকর্ষনীয় এই অফার শুধুমাত্র ২৬শে মার্চের জন্য ঘোষণা করা হয়েছে পিপলএনটেক ইন্সটিটিউট অফ আইটির ফেসবুক পেইজে।বিস্তারিত জানতে পেজে অথবা যোগাযোগ করুন - 01799 446655,01611 446699এছাড়াও অফিসের ঠিকানা ঠিকানা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি,পিপলএনটেক ইনস্টিটিউট অফ আইটি১৫১/৭, গুডলাক সেন্টার, (৭ম ও ৮ম তলা), পান্থপথ সিগনাল, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২০৫

post
টেক মেন্টর

ভিডিও স্ট্যাটাস দিতে পারবেন হোয়াটসঅ্যাপে

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের অভিজ্ঞতা ভালো করতে একের পর এক অসাধারণ ফিচার আনছে জাকারবার্গের মেটা। সম্প্রতি অনেক নতুন ফিচার নিয়ে এসেছে। তার মধ্যে একটি হচ্ছে এখন থেকে হোয়াটসঅ্যাপে একবারে ১ মিনিটের ভিডিও স্ট্যাটাসে দিতে পারবেন। বর্তমানে যেখানে একবারে ৩০ সেকেন্ডের ভিডিও স্ট্যাটাসে দেওয়া যায়। এ ছাড়াও আরও একাধিক ফিচারের ঘোষণা করেছে সংস্থা। যার মধ্যে রয়েছে এনক্রিপ্ট মেসেজ ডিসপ্লে হওয়া, ইউজারের প্রোফাইল স্ক্রিনশট নেওয়া বন্ধ করা, স্ট্যাটাসে মেনশন করলে সেই ইউজারকে অ্যালার্ট দেওয়া ইত্যাদি। হোয়াটসঅ্যাপ ট্র্যাকার ওয়েবিটাইনফোর রিপোর্ট অনুযায়ী, মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম এক নতুন ফিচার নিয়ে কাজ শুরু করেছে। যেখানে ব্যবহারকারীরা ১ মিনিটের ভিডিও স্ট্যাটাসে আপলোড করতে পারবেন। যা বর্তমানে ৩০ সেকেন্ড পর্যন্ত সীমাবদ্ধ রয়েছে। এই ফিচার ব্যবহারকারীদের স্ট্যাটাস আপলোড করার ক্ষেত্রে আগ্রহ বাড়াবে বলে মনে করছে মেটা। ফিচারটি অনেকদিন ধরেই চাইছিলেন ব্যবহারকারীরা। লম্বা ভিডিও আপলোড করার ইচ্ছা থাকলেও সীমাবদ্ধতার কারণে তা হয়ে উঠছিল না। তবে ইউজারদের কথা শুনে সেই ফিচার আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থা। এবার থেকে কোনো ভিডিও ৩০ সেকেন্ডে এডিট না করেই স্ট্যাটাসে আপলোড করতে পারবেন। এরই মধ্যে বিটা ব্যবহারকারীদের জন্য ফিচারটি রোল আউট করা শুরু হয়েছে। গুগল প্লে স্টোর থেকে হোয়াটসঅ্যাপ বিটা ভার্সনে ফিচারটি ব্যবহার করতে পারবেন অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা। পাশাপাশি এটি দ্রুত সবার অ্যাকাউন্টে রোল আউট করা হবে বলে জানানো হয়েছে। তবে ১ মিনিটের ভিডিও হোয়াটসঅ্যাপে স্ট্যাটাসে আপলোড করার জন্য অ্যাপটি লেটেস্ট ভার্সনে আপডেট করতে হবে।

post
টেক মেন্টর

আসছে ‘স্মার্ট রিং’

স্মার্ট গ্যাজেটের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। দৈনন্দিন কাজের জন্য স্মার্ট ফোন থেকে শুরু করে স্মার্ট ওয়াচ, স্মার্ট টিভিসহ ব্যবহার হচ্ছে অনেক কিছুর। এত সব গ্যাজেটের ভিড়ে এবার আপনাকে আরও আপডেট রাখতে আসছে স্মার্ট রিং। বাজারে আসছে স্যামসাংয়ের স্মার্ট আংটি ‘গ্যালাক্সি রিং’। যা ব্যবহারকারীর ঘুম আর স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখবে। স্মার্ট ওয়াচ ও এখন অতীত হতে চলেছে, দিন এখন স্মার্ট রিংয়ের। বাজারে আসছে স্যামসাংয়ের স্মার্ট আংটি ‘গ্যালাক্সি রিং’; উন্মোচিত হবে মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে। গত মাসে ক্যালিফোর্নিয়ায় গ্যালাক্সি এস২৪ স্মার্ট ফোন সিরিজ লঞ্চের সময় আংটিটির একটি ঝলক দেখানো হয়। তবে দর্শকরা মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে এবার সামনাসামনি আংটিটির খুঁটিনাটি পরখ করে দেখার সুযোগ পাবেন। ২০২৪ সালের শেষের দিকে রিংটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে। স্মার্ট রিং এর আগে অনেক সংস্থাই এনেছে। তবে স্যামসাং আনল এই প্রথম। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের অনেকে বলছেন, স্যামসাংয়ের মতো সংস্থা স্মার্ট রিং-এর দুনিয়ায় পা রাখায় আগামীতে এই স্মার্ট ডিভাইস যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠবে, তা বলাই যায়। মূলত স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিভিন্ন ধরনের ফিচারের দিকে নজর রেখেই তৈরি করা হয়েছে স্যামসাং গ্যালাক্সি রিং। জানা গেছে, গ্যালাক্সি রিং- এর সাহায্যে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে নজর রাখা যাবে, তার জন্য একটি নতুন অ্যাপের সাহায্য নেয়া হবে। এই অ্যাপের মাধ্যমে শুধু যে ব্যবহারকারীর বিভিন্ন হেলথ অ্যাক্টিভিটি ট্র্যাক করা যাবে তাই নয়, প্রয়োজনীয় হেলথ টিপসও দেবে এই অ্যাপ। জি-মেইলের বিকল্প এক্স-মেইল আনছেন ইলন মাস্কজি-মেইলের বিকল্প এক্স-মেইল আনছেন ইলন মাস্ক স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচের সঙ্গে এই নতুন স্মার্ট ডিভাইস গ্যালাক্সি রিং যাতে কাজ করতে পারে, সেই কাজও চলছে। যেহেতু মোটামুটিভাবে হেলথ ফিচার ট্র্যাকিংয়ের বিষয়টি রিং এবং ওয়াচ- দুই ডিভাইসেই থাকবে; তাই ঘুমের সময় আর স্মার্টওয়াচ না পরলেও চলবে। আপাতত গ্যালাক্সি রিং শুধুমাত্র স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোনের সঙ্গেই সংযুক্ত করা যাবে, এমনভাবেই তৈরি হয়েছে।

post
টেক মেন্টর

পিপলএনটেকে পোস্ট গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন সাইবার সিকিউরিটি কোর্সের সেমিনার অনুষ্ঠিত

স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার মূল চাবিকাঠি হবে ডিজিটাল সংযোগ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন স্মার্ট বাংলাদেশ ও স্মার্ট জাতি গঠনই বাংলাদেশের পরবর্তী লক্ষ্য।স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য পূরণে সাইবার সিকিউরিটি ও আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে কাজ করবে পিপলএনটেক বাংলাদেশ। ইতিমধ্যে সাইবার সিকিউরিটি ও আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (১লা মার্চ) ঢাকায় অবস্থিত পিপলএনটেকের নিজস্ব কার্যালয়ে সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ক একটি সেমিনার আয়োজন করা হয়। অর্ধ শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহনে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা বিষয়ক জাতীয় কমিটির সদস্য ও পিপলএনটেক ইনস্টিটিউট অফ আইটির হেড অফ ফ্যাকাল্টি সাইবার সিকিউরিটি প্রকৌশলী মো. মুশফিকুর রহমান।বর্তমানে ডিজিটাল বিপ্লবের সময়ে সাইবার সিকিউরিটির গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা করা হয় সেমিনারে। সেমিনারে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মুশফিকুর রহমান বলেন, বিদেশি সফটওয়্যার ব্যবহারে তথ্য নিরাপত্তা ঝুঁকি থাকে। জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দেশীয় উৎপাদিত সফটওয়্যার ব্যবহারের চর্চা বাড়াতে হবে। আর এটি নিশ্চিত করতে হলে প্রযুক্তিতে নিজেদের দক্ষ জনশক্তি তৈরি করা জরুরি এতে দেশের নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি প্রযুক্তি রপ্তানির মাধ্যমে বৈদেশিক আয়ও বাড়বে। এছাড়াও স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে সাইবার সিকিউরিটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন তিনি।পরে শিক্ষার্থীদের প্রশ্নোত্তর পর্বের মাধ্যমে শেষ হয় সেমিনারটি।পিপলএনটেকের আয়োজনে একবছর মেয়াদী পোষ্ট গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন সাইবার সিকিউরিটি কোর্স শুরু হবে চলতি মাসে।এই কোর্সে থাকবে ইথিক্যাল হ্যাকিং, ডিজিটাল ফরেনসিক ইনভেস্টিগেশন, ইনফরমেশন সিস্টেম সিকিউরিটি আর্কিটেকচার, ইনফরমেশন সিস্টেম অডিটিং, সাইবার সিকিউরিটি অপারেশন সেন্টার, ক্লাউড কম্পিউটিং সিকিউরিটি, নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি আর্কিটেকচার সহ মোট ১২ টি বিষয়।কোর্স শেষে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজির পার্টনারশিপে সার্টিফিকেট প্রদান করার ঘোষণা দেওয়া হয়।

post
টেক মেন্টর

এক ভিডিও দিয়েই ২ কোটি ৯০ লাখ টাকা আয়

অনলাইনে ভিডিও বা কন্টেন্ট ক্রিয়েটর বিষয়টি এখন কারও অপরিচিত নয়। তাই বলে এক ভিডিও দিয়ে ২  কোটি ৯০ লাখ টাকা আয়! এমন খবর শুনলে যে কারও চোখ হয়তো চড়কগাছ হওয়ার কথা। অবিশ্বাস্য মনে হলেও বাস্তবেই এমন ঘটনা ঘটেছে। খবর বিবিসির।ইউটিউবের জন্য নিয়মিত প্র্যাঙ্ক ও স্টান্ট ভিডিও তৈরি করেন জেমস স্টিফেন জিমি ডোনাল্ডসন। তার মালিকানাধীন ‘মি বিস্ট’ চ্যানেলের গ্রাহকসংখ্যা প্রায় ২৩ কোটি ৪০ লাখ। ইউটিউব ব্যবহারকারীদের কাছে ‘মি বিস্ট’ নামে পরিচিত এই মার্কিন তরুণ সম্প্রতি এক্সে (সাবেক টুইটার) মাত্র একটি ভিডিও পোস্ট করেই ২ লাখ ৬৩ হাজার ৬৫৫ মার্কিন ডলার বা ২ কোটি ৯০ লাখ টাকা (প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য ১১০ টাকা ধরে) আয় করেছেন।এক্সে ভিডিও পোস্ট করার বিষয়ে বরাবরই আগ্রহী ছিলেন না জিমি ডোনাল্ডসন। এ বিষয়ে তিনি জানিয়েছিলেন, নির্মাতাদের জন্য এক্সে ভিডিও প্রকাশ করা লাভজনক নয়। কারণ, এই প্ল্যাটফর্ম থেকে খুবই কম আয় করা যায়। তবে গত সপ্তাহে পরীক্ষামূলকভাবে তিনি এক্সে পুরনো একটি ভিডিও প্রকাশ করেন। মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই ভিডিওটি ১৫ কোটি ৬৭ লাখের বেশিবার দেখা হয়েছে।এ বিষয়ে এক্স পোস্টে জিমি ডোনাল্ডসন জানিয়েছেন, আমার প্রথম এক্স ভিডিও আড়াই লাখ ডলারের বেশি আয় করেছে। অনেকেই ভিডিওটি দেখেছেন বলে বিজ্ঞাপনদাতারা ভিডিওতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করেছে। এর ফলে আগের তুলনায় আয়ও বেশি হয়েছে।

post
টেক মেন্টর

ফেসবুক আইডি হ্যাক ঠেকাতে যা করবেন

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকিং এখন আতঙ্কে রূপ নিয়েছে। জনপ্রিয় ব্যাক্তিদের পাশাপাশি অতিসাধারণ মানুষও হচ্ছেন হ্যাংকিংয়ের শিকার। আর এতে আর্থিক প্রতারণাসগ ঘটছে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার মতো ঘটনাও। তবে কিছু নিয়ম মেনে পুনরুদ্ধার করতে পারবেন হ্যাক হওয়া আইডিটি। বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে ফেসবুক খুবই জনপ্রিয়। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই মাধ্যমটিতে রীতিমত ব্যবহারকারীরা আসক্ত হয়ে পড়ছে। এ কারণে প্রতারণার ফাঁদ হিসেবে এখন প্রতারক চক্রের লক্ষ্য ফেসবুক। প্রতারকরা বিভিন্নভাবে প্রতারণা করে থাকেন ফেসবুকে।এর মধ্যে একটি হচ্ছে- ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট হাতিয়ে নিয়ে তা ফেরত দেয়ার কথা বলে টাকা দাবি করা। কখনো আবার ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আপত্তিজনক, অনাকাঙ্ক্ষিত বা অপরাধমূলক কিছু পোস্ট করে। যে কারণে বিপদ ও বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়।এমন ঘটনার মুখোমুখি প্রায়ই হচ্ছেন মানুষ। থানায় জমা পড়ছে শত শত অভিযোগ । কিন্তু কোনোভাবেই হ্যাকারদের লাগাম টানা যাচ্ছে না। তবে কিছু পদ্ধতি মেনে চললে সুরক্ষিত রাখেতে পারবেন আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি। চলুন জেনে নেওয়া যাক কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন আপনার আইডিটি-অনেক সময় মেসেঞ্জারে অনেক প্রমোশনাল নিউজ বা আকর্ষণীয় নিউজের লিঙ্ক আসে। ক্লিক করলে প্রায় ফেসবুকের মতো দেখতে একটি ইন্টারফেস আসে, কিন্তু আপনাকে আবারও লগইন করতে বলা হয়। আপনি কিছু না ভেবেই ফেসবুক অ্যাকাউন্টের ইমেইল ও পাসওয়ার্ড দিয়ে দিলে হ্যাক হতে পারে আপনার ফেসবুক। কারণ ফেসবুক মনে করে যে ওয়েবসাইটে আপনি আপনার আইডি পাসওয়ার্ড দিলেন, সেটি আসলে ফেসবুক নয়। যখনই ব্রাউজারের মাধ্যমে ফেসবুকে লগ ইন করবেন, খুব ভালোভাবে ইউআরএল (ওয়েব অ্যাড্রেস) দেখে নিতে হবে। দেখতে হবে ওয়েবসাইটের ঠিকানা https://www.facebook.com দিয়ে শুরু হয়েছে কিনা। 'facebook' বানান খুব ভালোভাবে লক্ষ্য রাখতে হবে। অনেক সময় হ্যাকাররা 'facebok', 'ffacebook' বা 'facbook' ইত্যাদি বিভ্রান্তিকর ইউআরএল ব্যবহার করতে পারে। এসব বিভ্রান্তি এড়াতে ব্রাউজারের এড্রেস বারে নিজেই facebook.com লিখে সার্চ দিন।থার্ড পার্টি অ্যাপে লগইন করবেন না। কোনো কোনো থার্ড পার্টি অ্যাপ বা ওয়েবসাইটের কাছে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের অ্যাক্সেস আছে, তা নিয়মিত পরীক্ষা করুন। সন্দেহজনক কিছু দেখলেই সেই অ্যাপ বা ওয়েবসাইট মুছে দিয়ে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন।সাধারণত কেউ যখন আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড জানতে পারে, সেটা যেকোনোভাবেই হোক, তখনই অ্যাকাউন্ট হ্যাকের ঘটনা ঘটে। ফেসবুক এক্ষেত্রে বিশেষভাবে ঝুঁকিপূর্ণ, কারণ মানুষ তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও অ্যাপে লগ ইন করে। কেউ যদি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারে, তাহলে বিভিন্ন দিক থেকে আপনি ক্ষতির শিকার হতে পারেন।সিকিউরিটি সেটিংস অপশনে যান। কোন কোন ডিভাইস ও স্থান থেকে আপনি লগ ইন করেছেন, তার একটি তালিকা দেখা যাবে এখানে। তালিকা থেকে কোনোটি যদি আপনার অপরিচিত বা সন্দেহজনক মনে হয়, তাহলে এখান থেকেই লগ আউট করে দিতে পারবেন। কোন কোন অ্যাপ এবং ওয়েবসাইটে আপনি ফেসবুকের মাধ্যমে লগ ইন করেছেন, তা এই লিংকে ক্লিক করে দেখুন। কোনোটিকে যদি অপরিচিত বা সন্দেহজনক মনে হয়, তাহলে 'রিমুভ' বাটনে ক্লিক করে সেটিকে মুছে দিন। ফেসবুকের জেনারেল সেটিংস থেকে অ্যাকাউন্টের সঙ্গে সংযুক্ত আপনার ইমেইল ঠিকানাটি যাচাই করুন। যদি আপনার ছাড়া অন্য কারও ইমেইল দেওয়া থাকে, তাহলে সেটি মুছে দিন। এবার আবারও পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন। পাসওয়ার্ড পরিবর্তনের সময় Log out of other devices নামে একটি অপশন আসবে। এখান থেকে সন্দেহজনক লগ ইনগুলোকে লগ আউট করে দিন। জটিল পাসওয়ার্ড (বড় হাতের অক্ষর, বিশেষ চিহ্ন, নম্বর) ব্যবহার করুন। অন্য কোনো অ্যাকাউন্টে ব্যবহার করেছেন, এমন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। পাসওয়ার্ড মনে রাখতে সমস্যা হলে ভালো কোনো পাসওয়ার্ড ম্যানেজার অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন।হ্যাকিং থেকে বাঁচতে টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন পদ্ধতি চালু করুন। এর ফলে কেউ আপনার পাসওয়ার্ড জানলেও আপনার ফোনের নিয়ন্ত্রণ নেয়া ছাড়া অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারবে না। ফেসবুকের সিকিউরিটি চেকআপ থেকেও অ্যাকাউন্টের অপ্রয়োজনীয় ও সন্দেহজনক উপাদান চিহ্নিত করতে পারবেন।সবশেষে অ্যাকাউন্টের সঙ্গে যুক্ত যে ইমেইল অ্যাকাউন্ট, তারও পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলুন। প্রতি ১-৩ মাস পর পর এই ইমেইল অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন। তবে ফেসবুক হ্যাক হলেও আতঙ্কিত হওয়া যাবে না। অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে তা ফিরে পেতে পারেন। এর কিছু উপায় রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কীভাবে পুনরুদ্ধার করবেন হ্যাক হওয়া আইডিটি-বিভিন্ন কৌশলে ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিয়েই দ্রুত পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলে হ্যাকাররা। ফলে ব্যবহারকারীরা চাইলেই নিজেদের অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারে না। এমনকি নতুন করে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করা যায় না। ফলে অ্যাকাউন্ট হ্যাকড হলে প্রথমেই পাসওয়ার্ড রিসেট করতে হবে। এ জন্য ফেসবুক ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে ‘Forgotten password?’ অপশনে ক্লিক করে অ্যাকাউন্ট খোলার সময় দেওয়া মুঠোফোন নম্বর বা ই–মেইল ঠিকানা লিখতে হবে। এবার ‘Reset Your Password’ অপশনে ক্লিক করলেই পাসওয়ার্ড রিসেট হবে। ফলে নতুন পাসওয়ার্ড দিয়ে আবার ফেসবুকে প্রবেশ করা যাবে।ফেসবুক আইডি হ্যাক করে হ্যাকাররা যদি অ্যাকাউন্ট খোলার সময় দেওয়া মুঠোফোন নম্বর এবং ই–মেইল ঠিকানা পরিবর্তন করে ফেলে, তবে চাইলেও পাসওয়ার্ড রিসেট করে ফেসবুকে প্রবেশ করা যাবে না। এ ক্ষেত্রে প্রথমেই আইডি হ্যাক হওয়ার বিষয়ে ফেসবুকের কাছে অভিযোগ করতে হবে। এ জন্য www.facebook.com/hacked ঠিকানায় প্রবেশ করে my account is compromised অপশনে ক্লিক করতে হবে। এরপর অ্যাকাউন্টটিতে থাকা মুঠোফোন নম্বর, ই–মেইল বা ব্যবহারকারীর নাম লিখে সতর্কতার সঙ্গে অ্যাকাউন্টটি শনাক্ত করতে হবে। এবার ‘security check’ অপশনে ক্যাপচা (বিশেষ কোড) লিখলেই অ্যাকাউন্টটির পুরোনো পাসওয়ার্ডসহ নিরাপত্তাবিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্ন জানতে চাইবে ফেসবুক। প্রশ্নগুলোর সঠিক উত্তর দিয়ে সাবমিট অপশনে ক্লিক করলেই ফেসবুকের কাছে অভিযোগ জমা হবে। অভিযোগ পাওয়ার পর অ্যাকাউন্টটির মালিকানা যাচাইয়ের জন্য ফেসবুক সাধারণত ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা সময় নিয়ে থাকে। আপনার দেয়া সব তথ্য ঠিক থাকলে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে অ্যাকাউন্টটি ফিরিয়ে দেবে ফেসবুক।অনেক সময় হ্যাকাররা ফেসবুক আইডি হ্যাক করে বন্ধু তালিকায় থাকা ব্যক্তিদের অশ্লীল মন্তব্য, ছবি বা ভিডিও পাঠিয়ে থাকে। কেউ আবার বিপদে পড়ার কথা বলে অর্থও চায়। শুধু তা–ই নয়, সমাজ বা রাষ্ট্রবিরোধী বিভিন্ন পোস্টও দিয়ে থাকে। আর তাই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলেই ফোনকল বা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ সাইটের মাধ্যমে ফেসবুকে থাকা বন্ধুদের বিষয়টি জানাতে হবে। ফেসবুক হ্যাকের মাধ্যমে হয়রানি কিংবা বিড়ম্বনার শিকার হলে কালক্ষেপণ না করে নিকটস্থ থানা পুলিশকে অবহিত করুন এবং জিডি অথবা মামলা করুন। পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটে অভিযোগ করুন। 

post
টেক মেন্টর

ব্লাড প্রেসার থেকে ইসিজি সব রিপোর্ট দেখাবে স্মার্টওয়াচ

হাতের ঘড়ি এখন কাজ করছে মোবাইলের মতোই। দিনকে দিন মোবাইল ফোন যত স্মার্ট হচ্ছে তেমনি স্মার্ট হচ্ছে হাতের ঘড়িও। স্মার্টফোনের প্রায় সব কাজ এখন করা যাচ্ছে স্মার্টওয়াচে। স্মার্টফোনের সব সুবিধাসমৃদ্ধ এমনই এক স্মার্টওয়াচ লঞ্চ করেছে স্যামসাং- যেখানে বিপি, ইসিজি ট্র্যাকিং ফিচারের মতো মেডিকেল চেকআপ করা যাবে। স্যামসাং গ্যালাক্সি ওয়াচ ৬ সিরিজে রক্তচাপ এবং ইলেক্ট্রোকার্ডিওগ্রাম ফিচার দেয়া হয়েছে। এটি প্রথম স্মার্টওয়াচ, যাতে ওভার দ্য এয়ার অর্থাৎ ওটিএ সাপোর্ট করে। এতে আপনি স্যামসাং হেলথ মনিটর বিপি এবং ইসিজি ট্র্যাকিং ফিচারটি পেয়ে যাবেন। গ্যালাক্সি ওয়াচটি একটি ফটোপ্লেথিসমোগ্রাম (পিপিজি) সেন্সর দিয়ে তৈরি করা হয়েছে, যা সিস্টোলিক এবং ডায়াস্টোলিক চাপের পাশাপাশি পালস রেট রেকর্ড করতে পারে এবং স্যামসাং হেলথ মনিটর অ্যাপে রেকর্ড করতে পারে।ব্যবহার যেভাবে-    গ্যালাক্সি স্মার্টফোনের সঙ্গে আপনার গ্যালাক্সি ওয়াচ পেয়ার করুন।         এরপর স্যামসাং হেলথ মনিটর অ্যাপটি ওপেন করুন।         একটি ইসিজি রিডিং নিতে, আপনার বিপরীত হাতের আঙ্গুলগুলোকে গ্যালাক্সি ওয়াচের উপরের বোতামে ৩০ সেকেন্ডের জন্য আলতো করে চেপে রাখুন।         ইসিজি ডাটা পেয়ার করা গ্যালাক্সি স্মার্টফোনের সঙ্গে সিঙ্ক করা হয়; যেখানে একটি পিডিএফ রিপোর্ট তৈরি করা হয়।

post
টেক মেন্টর

ইউটিউবে যেভাবে ভিডিওর ভিউ বাড়াবেন

অনলাইনে অর্থ উপার্জনের জন্য অনেকেই ইউটিউব অ্যাকাউন্ট খোলেন। ভিডিও তৈরি করে নিজের সেই অ্যাকাউন্টে আপলোড করলেও অধিকাংশ সময় দেখা যায় ভিডিওতে ভিউ খুব বেশি একটা হয় না। মানসম্মত কনটেন্ট না হওয়া, সঠিক নিয়ম না মানার কারণে ভিডিওর ভিউ সংখ্যা খুব কম হয়ে থাকে। তাই আজকের প্রতিবেদনে ইউটিউবে ভিডিওর ভিউ বাড়ানোর জন্য বেশ কিছু কৌশল এবং প্রক্রিয়া সম্পর্কে জেনে নিন।ভিডিওর মান বৃদ্ধি করুন : ইউটিউবে ভিউ বাড়ানোর জন্য আপনাকে উচ্চ মানের ভিডিও তৈরি করতে হবে। যেন দর্শকরা অধিক সময় আপনার ভিডিওগুলো দেখতে উৎসাহিত হন।এজন্য ভালো ক্যামেরা, মাইক্রোফোন এবং প্রসেসিং উপকরণের জন্য নিয়ে চিন্তা করতে হবে।ইনফরমেটিভ এবং বিনোদনমূলক ভিডিও তৈরি করুন : আপনার ভিডিওগুলো ইনফরমেটিভ এবং বিনোদন ভিত্তিক হতে হবে। যেন ভিডিওটি দর্শকদের জন্য দ্রুত এবং বিনোদনমূলক হয়।বিশেষ টপিক নির্বাচন করুন : আপনি যে সম্প্রদায়ের আছেন, সেই সম্প্রদায়ের জন্য ভিডিও তৈরি করুন এবং আপনার নিজের প্রতিষ্ঠান তৈরি করুন।ট্রেন্ডিং টপিক নির্বাচন করুন : ইউটিউবে ট্রেন্ডিং টপিকের ভিডিও তৈরি করা যেতে পারে। তাহলে আপনার ভিডিওগুলো একটি বিশেষ দর্শক মহলে প্রচুর ভিউ পাবে।আকর্ষণীয় ভিডিও তৈরি করুন : আপনি আপনার ভিডিওগুলোর প্রমোট করার জন্য সামাজিকমাধ্যমে একটিভ থাকার পাশাপাশি আকর্ষণীয় ভিডিও তৈরি করতে পারেন। এতে আপনার দর্শকদের সঙ্গে কমেন্ট এবং প্রতিক্রিয়ার মাধ্যমে ইন্টারঅ্যাক্ট বৃদ্ধি পাবে।ভিডিও প্রকাশ সময় নির্বাচন করুন : আপনি সবচেয়ে জনপ্রিয় সময় বা পিক আওয়ারে আপনার ভিডিও আপলোড করুন। একটি পুল তৈরি করুন : ভিডিওর শুরুতে দর্শকদের উৎসাহিত করার জন্য অংশগ্রহণকারীদের জন্য একটি কুইজ/পুল তৈরি করতে পারেন। যার মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেলে এনগেজ বৃদ্ধি পাবে।কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন : আপনার ভিডিওর টাইটেল ও ডেসক্রিপশনে সঠিক কীওয়ার্ড ব্যবহার করতে হবে। কারণ সঠিক কীওয়ার্ড খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি সার্চ ইঞ্জিনে লিখে ভাল ফলাফল পেতে পারেন। কারণ, কীওয়ার্ড লিখেই বেশির ভাগ লোক ইউটিউবে নিজের পছন্দের ভিডিওর খোঁজ করেন।

About Us

NRBC is an open news and tele video entertainment platform for non-residential Bengali network across the globe with no-business vision just to deliver news to the Bengali community.